আরও আক্রমানাত্মক হতে হবে আমিরকে

আরও আক্রমানাত্মক হতে হবে আমিরকে

0 123

অভিজ্ঞের মতো আঘাত হানো। বক্সার যেমন প্রতি রাউন্ডের পর মাথা নিচু করে নিজের জায়গায় ফেরে, তেমনই মাথাটা নিচু রাখো। মোহাম্মদ আমিরকে এভাবেই লর্ডসে লড়ার দীক্ষা দিয়ে পাঠিয়েছেন তার মেন্টর। আজ বৃহস্পতিবারই লর্ডসে আমিরের ফেরার টেস্ট শুরু। যেখানে তাকে সাদরে বরণ করে নেবে না কেউ।

২০১০ সালে লর্ডসেই স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছিলেন তখনো টিনএজার আমির। ৫ বছর নিষেধাজ্ঞা কাটিয়েছেন। ফিরেছেন গত বছর। আর টেস্টে ফিরছেন কাকতালীয়ভাবে লর্ডস টেস্ট দিয়েই। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৬ বছরের ব্যবধানে মাঠে নামার আগে ২৪ বছরের আমিরের ওপর চাপ অনেক। ইংলিশ বর্তমান, সাবেক ক্রিকেটার থেকে মিডিয়া, সবাই তাকে চাপে ফেলছে।

আমিরের যখন ১১ বছর বয়স তখন থেকে তার স্কুলের শিক্ষক ও কোচ আসিফ বাওয়াজা। তিনি বলেছেন, “সে দেশ ছাড়ার আগে অনেক কিছু আলাপ করেছি আমরা। তাকে লর্ডসে বক্সারের মতো করে খেলতে বলেছি। বক্সার যেমন মাথা নিচু করে নিজের জায়গায় ফেরে, সমালোচকদের দেখে না। তেমন করেই খেলতে বলেছি তাকে।”

সাবেক টেস্ট খেলোয়াড় ও বর্তমানে মনো চিকিৎসক মইন-উল আতিক বলেছেন, “অপরাধটা বুঝতে পেরেছিল আমির। তার সাথে ২০১২ সালে বসেছিলাম। তার বিরুদ্ধে যারা কথা বলছে তাদের দিকে মন দিতে নিষেধ করেছিলাম। কাজ দিয়ে তাদের মন জয় করার দিকে মন দিতে বলেছিলাম।”

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে নেটে ফিরে ‘চোর’ গালি শুনেছেন আমির। বৃটিশ মিডিয়া কয়েক দিন আগে শিরোনাম করেছে, “স্পট ফিক্সার আমিরের ৩ উইকেট’। প্রস্তুতি ম্যাচে ৩ উইকেট পেয়েছিলেন আমির। আরো অনেক কথা চলছে। কিন্তু তার মেন্টর বলেছেন, “আমির মানসিক ভাবে খুব শক্ত। সে জানে লর্ডসে অসাধারণ একটি পারফরম্যান্স ক্রিকেট বিশ্ব বদলে দেবে, সবকিছু ফিরে পাবে সে।”
নিউজ.ইকরা

একই রকম লেখা সমূহ

0 9

0 6

মন্তব্য করুন

উত্তর দিন